সংবাদ :
জাতীয় : জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত- বাংলাদেশের আকাশে আজ পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে, ১০ জুলাই রবিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে ইসলামিক বিশ্ব : আরাফাতে খুতবা দিবেন শায়খ ড. মুহাম্মাদ আবদুল করীম , হজের খুতবা সরাসরি সম্প্রচার হবে বাংলাসহ ১৪ ভাষায় আন্তর্জাতিক : আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় ৩য় স্থান অর্জনকারী সালেহ আহমদ তাকরিমকে সংবর্ধনা প্রদান করল ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন

  • টেক্সট সাইজ
  • A
  • A
  • A
  • |
  • রং
  • C
  • A
  • A
  • A

আল্লাহর কাছে দোয়া আমরা হাত উঠিয়ে করব কি না/
প্রিন্ট
প্রকাশঃ : মঙ্গলবার ২৫/০৯/২০১৮

****আল্লাহর কাছে দোয়া আমরা হাত উঠিয়ে করব কি না ?******

বিগত দিনে আমরা আযানের প্রচলিত দোয়ার দলিল ভিত্তিক হাদীছ নির্ভর আলোচনা করেছিলাম। অনেকেই আমাকে অনুরোধ করেছেন এ দোয়া আমরা কিভাবে করব ? এ প্রশ্নের কারণ ও আছে । আমাদের দেশে অনেকেই নামাজের পরও দোয়া করতে ই রাজি নন। পরিবেশ অনুকুলে হলে উহাকে বিদা’ত বলতেও কুন্ঠাবোধ করেন না । আযানের দোয়া তো অনেক দূরের ব্যপার! তাই আজ আমরা নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর দোয়ার পদ্ধতি আলোচনা করব। حدثنا ابو بكر بن ابي شيبة حدثنا يحي بن ابي بكر عن شعيبة عن ثابت عن انس قال كان رسول الله صلي الله رسول الله صلي الله عليه وسلم يرفع يديه في الدعا হযরত আনাস (রাঃ) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দুই হাত উঠিয়ে দোয়া করতেন ।كان يرفع দ্বারা বুঝা যায় আল্লাহর রাসূল দোয়ায় হাত উঠাতেন ।এটি তাঁর অভ্যাস ছিল। চাই সে দোয়া নামাজের পর হোক ,আযানের পর হোক বা মজলিসের দোয়া হোক । তিনি হাত উঠিয়ে দোয়া করতেন । (হাদীছ খানা সহিহ বুখারী ,সহিহ মুসলিম হাদীছ নং ৮৯৫ সহিহ ইবনে হিব্বান হাদীছ নং ৮৭৭, মুসনাদে ইমাম আহমদ হাদীছ নং ১৩১৮৭, মুসনাদে আবি ইয়ালা হাদীছ নং ৩৫০২ সহ অনেক হাদীছ গ্রন্থে উল্লেখ আছে ।) হাদীছ সহিহ ,সন্দেহের অবকাশ নেই।

 

আরো দেখুন - حدثنا الحسن بن حماد الكوفي حدثنا محمد بن فضيل عن يزيد بن ابي زياد عن سليمان بن عمرو بن الاحوص الازدي قال حدثني ابو هلال صاحب هذه الدار عن ابي برزة الاسلمي ان رسول الله صلي الله عليه وسلم رفع يديه في الدعا অর্থাৎ হজরত আবী বরজা আসলমী (রাঃ) বর্ণনা করেন, নিশ্চয় আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দোয়ার মধ্যে দু’ হাত উঠিয়ে দোয়া করেছেন । (ইমাম হায়ছামী মাজমুয়ায়ে জাওয়ায়িদ হাদীছ নং- ১৭৩৩৬, মুসনাদে আবি ইয়ালা হাদীছ নং- ৭৪৪)

 

এ সম্পর্কে আরো হাদীছ লক্ষ্য করুন -اخبرنا اسحاق بن ابراهيم قال اخبرنا المعتمر قال حدثني ابي قال حدثني بركة عن بشير بن نهيك عن ابي هريرة قال كان رسول الله صلي الله عليه وسلم يرفع يديه في الدعاء অর্থাৎ হজরত আবু হোরায়রা (রাঃ) বলেন রাসূলে পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দোয়ার সময় দু হাত উঁচু করতেন ।( হাদীছটি বর্ণনা করেছেন ইমাম নাসায়ী সুনানুল কুবরা হাদীছ নং ১৮৩৪, মাজমুয়ায়ে জাওয়াইদ হাদীছ নং ১৭৩৩৭, মুসনাদে বাজ্জার হাদীছ নং ৪৫৭ মুসনাদে আহমদ হাদীছ নং ৮৮৩০ মুসনাদে ইসহাক ইবনে রাহবিয়া হাদীছ নং -৯৮, মুসনাদে ইমাম আহমদ হাদীছ নং- ৮৮৩০।)

দয়াল নবিজি হাত উঠিয়ে দোয়া করেছেন এবং উম্মত দেরকে হাত উঠিয়ে দোয়া করতে শিক্ষা দিয়েছেন । হাদীছ দেখুন –“ حدثنا سليمان بن عبد الحميد البهراني قال قراته في اصل اسماعيل يعني ابن عياس حدثني ضمضم عن شريح حدثنا ابو ظبية ان ابي بحرية السكوني عن مالك بن يسار رضي الله تعالي عنه ان رسول الله صلي الله عليه وسلم قال اذا ساءلتم الله فاسالواه ببطن اكفكم অর্থাৎ - হজরত মালেক ইবনে ইয়াসার হতে বর্ণিত ,তিনি বলেন রাসূলে পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন; যখন তোমরা আল্লাহর কাছে কিছু চাও তখন তোমাদের দুই হাতের পেঠ দ্বারা প্রার্থনা কর ।(সুনানে আবী দাউদ,হা/১৪৮৬ সুনানে ইবনে মাজাহ-২৪৮ মেশকাত শরীফ- ১৯৫ পৃঃ-হাদীছ নং-২২৪২) নাসীরুদ্দীন আলবানী বলেছেন قلت وهذا اسناده جيد “ আমি বলি এর সনত অতি উত্তম” ।(সিলসিলায়ে সহীহাহ হাঃ/৫৯৫)

সহীহ মুসলিম শরিফের হাদীছ নং ৩৪৬ ফতহুল বারী শরহে বুখারীর ১১তম খন্ডের ১৫৫ পৃঃ এক হাদীছে রয়েছে .. عن عبد الله ابن عمرو ان النبي صلي الله عليه وسلم ذكر قول ابراهيم و عيسي فرفع يديه وقال الهم امتي امتي

“হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর বলেন নিশ্চয় যখন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হযরত ইব্রাহিম ও ঈসা (আঃ) এর কথা বললেনও, অতঃপর দুই হাত উঠিয়ে বললেনঃ হে আল্লাহ আমার উম্মত! আমার উম্মত “।

দেখা গেল দয়াল নবীজি হাত উঠিয়ে ‘আল্লাহুম্মা’ বলে দোয়া করতেন । উম্মতের ভাবনায় আল্লাহর কাছে ফানাহ চাইতেন ।প্রকাশ থাকা প্রয়োজন যে, এ আলোচনা নিশ্চয় জামাতের মধ্যে হয়েছিল । আর আমাদের ডিজিটাল মৌলভী ও নজদের ভাবশিষ্যরা হাত উঠিয়ে দোয়া করা কেবল ই দেখেন বেদা’ত।

এভাবে অগণিত হাদীছ রয়েছে যেখানে নবীজি হাত উঠিয়ে দোয়ার কথা পাওয়া যায় । কাঁধ বরাবর হাত উঠিয়ে দোয়া করার সহিহ বর্ণনা পাওয়া যায়।সহিহ ইবনে হিব্বানে ৮৭৬ নং হাদীছে দেখা যায় নবীজি বলেন – নিশ্চয় তোমাদের প্রভূ লজ্জাশীল ও পরম দাতা, তার কাছে দু হাত উঠালে তা খালি ফিরিয়ে দিতে তিনি লজ্জাবোধ করেন । সুবহানাল্লাহ ।

তাই এ সকল হাদীছের আলোকেই ১১শ শতাব্দির মোজাদ্দিদ আল্লামা মোল্লা আলী কারী (রাঃ)বলেন-انه عليه السلام كان يرفع يديه في كل دعاء নিশ্চয় নবী আলাইহিস সালাম প্রত্যেক দোয়ায় হাত উঠিয়ে দোয়া করতেন।(মেরকাত ৫ম খন্ড-১৩২ পৃঃ) আল্লামা ইবনে হাজার আসকালানী বলেন হযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) উল্লেখ করেন হাত উঠানো দোয়ার সিফাত বা গুণ ।

আল্লামা ইবনুল হুমাম বলেন – হাত উঠানো দোয়ার সুন্নাত। (ফতহুল কাদীর ১ম খন্ড-৪৫১ পৃঃ) আশা করি এর পরে কাল জ্বরে কাউকে মোহাবিষ্ট না করে থাকলে এ ব্যপারে আর সন্দেহ পোষণ করার অবকাশ বাকী থাকার কথা নয়।ان الله يهدي لمن يشاء

 

 

 

১৩২৬

কোন তথ্যসূত্র নেই

আপনার জন্য প্রস্তাবিত

ইসলামিক ফাউন্ডেশন

To preach and propagate the values and ideals of Islam, the only complete code of life acceptable to the Almighty Allah, in its right perspective as a religion of humanity, tolerance and universal brotherhood and bring the majority people of Bangladesh under the banner of Islam

অফিসিয়াল ঠিকানা: অফিসিয়াল ঠিকানা : ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ, আগারগাঁও, শের-এ- বাংলা নগর, ঢাকা -১২০৭