সংবাদ :
জাতীয় : জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত- বাংলাদেশের আকাশে আজ পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে, ১০ জুলাই রবিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে ইসলামিক বিশ্ব : আরাফাতে খুতবা দিবেন শায়খ ড. মুহাম্মাদ আবদুল করীম , হজের খুতবা সরাসরি সম্প্রচার হবে বাংলাসহ ১৪ ভাষায় আন্তর্জাতিক : আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় ৩য় স্থান অর্জনকারী সালেহ আহমদ তাকরিমকে সংবর্ধনা প্রদান করল ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন

  • টেক্সট সাইজ
  • A
  • A
  • A
  • |
  • রং
  • C
  • A
  • A
  • A

দেন-মোহর
প্রিন্ট
প্রকাশঃ : মঙ্গলবার ১২/১২/২০১৭

 

واتوا النساء صدقاتهن نحلة .
স্ত্রীদের প্রাপ্য মহরানা তাদের আদায় করে দাও আন্তরিক খুশির সাথে ও তাদের অধিকার মনে করে, কোন বিনিময় ও বদলা ব্যতিরেকে, পবিত্র ও নিষ্কলুষ চিত্তে, আল্লাহর তরফ হতে বিশেষ দান স্বরুপ।
""""""""'''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""

১। হযরত ইবনে উমর বলেন-
لا يحل لمسلم أن يدخل علي امرأته حتي يقدم اليها ما قل او كثر.
কোন মুসলমানেরই মহরানা বাবদ কম বা বেশি কিছু অগ্রিম না দিয়ে তার স্ত্রীর নিকট গমন করা জায়েয নয়।
২। মালেক ইবনে আনাস বলেছেন:
لا يدخل حتي يقدم شيئا من صداقها ادناه ربع دينار او ثلاثة دراهم سواء فرض لها او لم يكن فرض-
স্ত্রীকে যেন তার মহরানার কিছু না কিছু না দিয়ে স্বামী তার নিকট গমন না করে। মহরানার কম -সে-কম পরিমাণ হলো একটি দিনারের এক চতুর্থাংশ কিংবা তিন দিরহাম । বিয়ের সময় এ পরিমাণ নির্দিষ্ট হোক বা না হোক, তাতে কোন সমস্যা নেই।

শাহ অলী উল্লাহ দেহলভীর মতে, দেন-মোহরের পরিমাণ এমন হওয়া উচিত, যা আদায় করা স্বামীর পক্ষে কষ্ট সাধ্য হবে এবং সেজন্যে সে রীতিমত চিন্তিত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়বে। পক্ষান্তরে তার পরিমাণ এমনও হওয়া উচিত নয়, যা আদায় করা স্বামীর পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়ে । এজন্যে নবী সা গরিব সাহাবীকে বললেন:
التمس ولو خاتما من حديد. -
আর যে লোহার আংটিও দিতে অক্ষম তাকে বলেছেন:
وقد زوجتك بما معك من القران.
কুরআন শরীফ এর যা কিছু তোমার জানা আছে, তা তোমার স্ত্রীকে শিক্ষা দেবে- এই বিনিময়ে আমি মেয়েটিকে তোমার নিকট বিয়ে দিলাম।
একটি হাদিস থেকে জানা যায় এক জোড়া জুতার বিনিময়ে অনুষ্ঠিত বিয়েকেও রাসুল সা বৈধ বলে ঘোষণা দিয়েছেন। অপর দিকে কুরআন মজিদে এই মহরানা সম্পর্কে বলা হয়েছে:
واتيتم احدهن قنطارا - النساء ٢٠.
এবং তোমরা মেয়েদের এক একজনকে 'বিপুল পরিমাণ' ধন সম্পদ মহরানা বাবদ দিয়ে দিয়েছ।

হযরত উমর উম্মে কুলসুম কে বিয়ে করেছেন চল্লিশ হাজার দিরহাম মহরানা দিয়ে। রাসুল সা হযরত উম্মে হাবিবা কে চারশত দিনার দিয়ে। অপর বর্ণনায় মতে আট শত দিনারে।

এ আলোচনা থেকে মহরানার সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ পরিমাণ জানা যায়। ইসলামী শরিয়তে এ দু' ধরনের পরিমাণই জায়েয।

রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন:

خير الصداق ايسره (ابوداود،حاكم).

সবচেয়ে উত্তম মাহরানা হচ্ছে তা, যা আদায় করা খুবই সহজসাধ্য।
আল্লাহ পাক বলেছেন:

فما استمتعتم به منهن فاتوهن اجورهن فريضة. النساء:

তোমরা স্ত্রীদের কাছ থেকে যে যৌন স্বাদ গ্রহন কর, তার বিনিময়ে তাদেরকে ফরজ মনে করে মাহরানা দিয়ে দাও।

৪৩২

কোন তথ্যসূত্র নেই

আপনার জন্য প্রস্তাবিত

ইসলামিক ফাউন্ডেশন

To preach and propagate the values and ideals of Islam, the only complete code of life acceptable to the Almighty Allah, in its right perspective as a religion of humanity, tolerance and universal brotherhood and bring the majority people of Bangladesh under the banner of Islam

অফিসিয়াল ঠিকানা: অফিসিয়াল ঠিকানা : ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ, আগারগাঁও, শের-এ- বাংলা নগর, ঢাকা -১২০৭